জামিয়ার পরিবেশ

আল্লাহ তা’আলার উপর তায়াক্কুল ও ভরসা করে এবং তাঁর জন্য নিজের ধর্মপরায়ণতা ও সকল কার্যাদি নিবেদিত করে, শায়খের প্রবল মেহনত এবং ধারাবাহিকতা মোজাহাদা ও ত্যাগের বদৌলতে, জামিয়া দু’দশকের কম সময়ে বিস্ময়কর উন্নতি লাভ করেছে এবং আশ্চর্যজনক অগ্রগতি অর্জন করেছে। প্রায় চার বিঘা জমির উপর প্রতিষ্ঠিত আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানীনগর, ঢাকা, বর্তমানে তিনটি ছাত্রাবাস দ্বারা সজ্জিত। তন্মধ্যে দু’টি ভবন তিন তলা বিশিষ্ট, অপর একটি দ্বিতল। আরো রয়েছে তিন তলা বিশিষ্ট আধুনিক নির্মাণ শিল্পে সমৃদ্ধ একটি বিস্তৃত সুন্দর মসজিদ। তিন দিক থেকে ছাত্রাবাস ও এক দিক থেকে মসজিদ বেষ্টিত জামিয়ার মধ্যস্থলে রয়েছে একটি শ্যামল সুন্দর প্রাঙ্গণ। তাতে অপূর্ব বিন্যাসে বর্ধনশীল অনেক সতেজ সজীব চারাগাছ রয়েছে। সেগুলো যেন অভিজ্ঞ কোন মালী অথবা দক্ষ কোন প্রকৌশলী রোপন করেছে। তাছাড়া এখানে ওখানে বিভিন্ন উদ্ভিদ ও গুল্ম ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে, যা প্রাঙ্গনের সৌন্দর্য ও শোভা বৃদ্ধি করেছে এবং ক্রমশ যেন প্রাঙ্গনের সৌন্দর্য আর জৌলুস বেড়েই চলছে।
এভাবে জামিয়ার প্রাঙ্গন দর্শকদের চোখকে শীতল করে এবং আগুন্তুককে নিজ সৌন্দর্যের আকর্ষণে মুগ্ধ করে। দর্শক তা প্রত্যক্ষ করে আনন্দিত হয় এবং সে যেখানেই যায় জামিয়ার স্মৃতি বহন করে নিয়ে যায়। প্রত্যেক ছাত্রই প্রত্যাশা করে, সে যদি এই জামিয়ায় ভর্তি হত, তাহলে ইল্‌মের প্রমোদ ও মনোরকম দৃশ্যের বিনোদ উভয়টি সে এক সাথে লাভ করত।